• কানিজ ফাতিমা সোনিয়া : চীনের বিমান নিয়ন্ত্রক সংস্থা সোমবার জানিয়েছে, পাঁচজন যাত্রীর কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়ায় বিমানের একটি ফ্লাইট বাতিল করতে যাচ্ছে। ২৮ জুন বিমানের পাঁচজন যাত্রী কোভিড -১৯ পরীক্ষা করার পরে পজিটিভ ফলাফল পাওয়ার কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে চীনের সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া জানিয়েছে। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে চীনের গুয়াংজুগামী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এই ফ্লাইট স্থগিত করা হবে।

ফ্লাইট বিএস-৩২৫ স্থগিতকরণ এক সপ্তাহের জন্য চলবে, ৬ জুলাই থেকে শুরু হয়ে পরবর্তী এক সপ্তাহ এই স্হগিতাদেশ কার্যকর থাকবে। এটি বিদেশের বিমান সংস্থাগুলির করা প্রথম স্থগিতাদেশ।

কেভিড -১৯ এর বিস্তারকে রোধ করার জন্য, ৪ জুন চীনের সিভিল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (সিএএসি) কর্তৃক একটি পুরষ্কার এবং স্থগিতকরণ ব্যবস্থা চালু করা হয়েছিল।

সিএএসি নীতিমালা অনুসারে, বিমানবন্দরের সমস্ত অভ্যন্তরীণ যাত্রী যদি ধারাবাহিকভাবে তিন সপ্তাহের জন্য করোনাভাইরাস পরীক্ষায় নেগেটিভ ফলাফল পায়, তবে অপারেটিং এয়ারলাইনসকে তার ফ্লাইটের সংখ্যা প্রতি সপ্তাহে দুইটিতে বাড়ানোর অনুমতি দেওয়া হবে।

পরীক্ষায় যাত্রীদের মধ্যে যদি পাঁচ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ পাওয়া যায় তবে এয়ারলাইন্সের বিমানগুলি এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত করা হবে। আর যদি যাত্রীদের সংখ্যা ১০ এ পৌঁছায় তাহলে স্থগিতাদেশটি চার সপ্তাহ চলবে। সিএএসি আরও বলেছে যে, সংস্থাটি বিএস-৩২৫ এর মূল কোটা অন্য রুটে স্থানান্তর করার অনুমোদন দিবে না।