বর্জ্যে আটকে পড়া কচ্ছপ সাগরে অবমুক্ত করা হচ্ছে

বিগণবিডি ডেস্ক: কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে প্লাস্টিকের বর্জ্যে আটকে পড়া ১৬০টি কচ্ছপ উদ্ধার করে সমুদ্রে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ৩০টি কচ্ছপ মারা গেলে তাদেরকে বালিতে পুঁতে ফেলা হয়েছে এবং আরো বেশ কিছু কচ্ছপ আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন একজন কর্মকর্তা ও সংরক্ষণবিদরা। বুধবার ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইলে এ তথ্য উঠে এসেছে।

অলিভ রিডলে প্রজাতির কচ্ছপগুলোকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বোতল, প্লাস্টিক এবং জালের মতো বর্জে্য জড়িয়ে ভাসতে দেখা যায়। স্থানীয় পরিবেশ বিভাগের উপ-পরিচালক নাজমুল হুদা বলেন, আমাদের দেখায় এত বড় সংখ্যক কচ্ছপের মৃত্যু এবং আহত হওয়া এবারই প্রথম। এটি নজিরবিহীন। প্রায় ১৬০টি কচ্ছপকে জীবন্ত উদ্ধার করে সাগরে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে ছেড়ে দেওয়ার পর কিছু কচ্ছপ সৈকতে ফিরে এসেছে। আসলে তারা এতটা দুর্বল হয়েছে যে সাগরে থাকতে পারছেনা।
স্থানীয় সংরক্ষণ সংস্থা দরিয়ানগর গ্রীণ বয়েজের আসাদুজ্জামান সায়েম বলেন, কয়েকটি কচ্ছপের পা এবং মাথা ছিলো না। আমরা ৪০ কেজির মতো কচ্ছপকে জীবিত উদ্ধার করেছি। এগুলো প্লাস্টিক এবং জালের মতো বর্জে্য আটকা পড়েছিলো।
বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় কচ্ছপ বিশেষজ্ঞ ক্রিয়েটিভ কনজারভেশন অ্যালায়েন্স এনজিও’র শাহরিয়ার সিজার রহমান বলেন, কিছু কচ্ছপ একেবারেই বিপর্যস্ত ছিলো এবং বর্জ্য থেকে মুক্তি পেয়েও কিছু বেঁচে থাকতে পারেনি। স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবীরা তাদের সাগরে ছেড়ে দেওয়ার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। তবে কিছু কচ্ছপের আঘাতের পরিমাণ বেশি হওয়ায় অনেকেরই বেঁচে থাকার সম্ভাবনা কম। এ ধরণের সমস্যার দীর্ঘমেয়াদী সমাধান করতে হলে কক্সবাজারে কচ্ছপ উদ্ধার ও পুনর্বাসন কেন্দ্র স্থাপন করতে হবে।